আফগানিস্তানেই আছেন আহমেদ মাসুদ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বিকাল ৭:২৮ সময়

সূত্রের বরাতে ইরানি সংবাদ সংস্থা ফার্স জানিয়েছে, মাসুদের তুরস্ক কিংবা অন্য দেশে পালিয়ে যাওয়ার গুজব মিথ্যা। আহমেদ মাসুদ এখন নিরাপদ স্থানে রয়েছেন। যোগাযোগ রাখছেন পাঞ্জশিরে তার অনুগত বাহিনী সঙ্গে। তবে ওই সূত্র আরও জানিয়েছে, পাঞ্জশিরের প্রধান সড়কগুলোর ৭০ শতাংশ এখন নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে তালেবান।

গোটা আফগানিস্তান দখল করার পরও তালেবান যোদ্ধারা পাঞ্জশিরের দখল নিতে পারেনি। উপত্যকায় মাসুদের নেতৃত্বে তালেবানবিরোধী প্রতিরোধ গড়ে তোলে এনআরএফ বাহিনী। এরপর টানা কয়েকদিন হামলা চালানোর পর তালেবান পাঞ্জশির দখলের দাবি করে। তবে ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফোর্স বা এনআরএফ এখনো সেই দাবি প্রত্যাখ্যান করে আসছে।

মাসুদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী কাশেম মোহাম্মদি বার্তা সংস্থা ফার্সকে বলেছেন, ‘সাম্প্রতিক দিনগুলোতে তালেবান পাঞ্জশিরে প্রবেশে করেছে এবং এখন উপত্যকার প্রধান সড়কগুলোর ৭০ শতাংশ তাদের নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে। কিন্তু পাঞ্জশির উপত্যকার পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ এখনো ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফোর্স বা এনআরএফ-এর হাতেই রয়েছে।’

এনআরএফ জানিয়েছে, প্রতিরোধ বাহিনী তালেবানের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যেতে সমস্ত উপত্যকাজুড়ে কৌশলগত এলাকাগুলোতে অবস্থান করছে। পাঞ্জশির এনআরএফ-এর দুর্গ বলে পরিচিত। এর আগে মাসুদের বাবা আহমেদ শাহ মাসুদ সাবেক সোভিয়েত বাহিনী এবং তালেবান যোদ্ধাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলে পাঞ্জশিরকে শত্রুমুক্ত করেছিল।

গত ১৫ আগস্ট কাবুল দখলের মাধ্যমে গোটা আফগানিস্তানে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করে তালেবান। তবে তালেবান বিরোধীদের দখলেই ছিল পাঞ্জশির। প্রয়াত আফগান গেরিলা কমান্ডার আহমেদ শাহ মাসুদের ছেলে আহমেদ মাসুদ ক্ষমতাচ্যুত আফগান সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লাহ সালেহকে নিয়ে সেখানে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে উপত্যকায়।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদন অনুযায়ী সম্প্রতি এক অডিও বার্তায় আহমেদ মাসুদ দেশজুড়ে তালেবানবিরোধী প্রতিরোধের ডাক দিয়ে বলেছেন, ‘আপনি যেখানেই থাকুন না কেন, দেশে কিংবা বিদেশে, আমি আপনাকে আমাদের দেশের মর্যাদা, স্বাধীনতা এবং সমৃদ্ধির জন্য একটি জাতীয় অভ্যুত্থান শুরু করার আহ্বান জানাচ্ছি।’

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি

রাজ আমাকে জোর করে চুমু খেয়েছিল: শার্লিন

বিনোদন ডেস্ক
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, দুপুর ২:২৭ সময়

রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে যারা অভিযোগ তুলেছিলেন, তাদের একজন শার্লিন চোপড়া। এই মডেল ও অভিনেত্রী বিস্ফোরক সব তথ্য প্রকাশ্যে আনেন। তার বয়ানও গুরুত্বের সঙ্গে রেকর্ড করেছে মুম্বাই পুলিশ।

এদিকে রাজের জামিন পাওয়ার পর শিল্পা শেঠিকে খোঁচা দিয়েছেন শার্লিন। টুইট করে তিনি বলেছেন, টিভিতে আপনি অনেক কিছুই করেন, বলেন। শিল্পীকে প্রণাম করতেও দেখা যায় আপনাকে। মাঝে মধ্যে একটু টিভির পর্দা থেকে বেরিয়ে কিছু একটা করুন। রাজপ্রাসাদ থেকে বেরিয়ে বাইরের জগতটার দিকে তাকান। সেলিব্রিটির মুখোশ খুলে মানুষকে সাহায্য করুন। দেখবেন আপনার সামনে সবাই মাথা নোয়াবে!

এর আগে রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলেছিলেন শার্লিন চোপড়া। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘২০১৯ সালের শুরুর দিকে আমার সহকারীকে ফোন করেন রাজ। রাজ আমার নামে একটি অ্যাপ তৈরি করার কথা বলেছিলেন। তারপর হঠাত্‍ আমার বাড়িতে এসে হাজির হন। রাজের সঙ্গে এই অ্যাপ নিয়ে তর্কও হয়েছিল। এরপরই হঠাত্‍ আমাকে জোর করে চুমু খেতে শুরু করেন রাজ! আমি বাধা দিলেও তিনি আমার কথা শোনেননি।’

শুধু তাই নয়, শিল্পার সঙ্গে রাজের সম্পর্ক ছিল না বলেও জানিয়েছিলেন শার্লিন। সেই দুঃখ তার কাছেই নাকি প্রকাশ করতেন রাজ।

শোনা যায়, রাজের পর্নভিডিওতে অভিনয় করেছিলেন শার্লিন। একেকটি প্রজেক্টের জন্য রাজের কাছ থেকে ৩০ লাখ রুপি করে পেতেন এই অভিনেত্রী। এরকম ১৫ থেকে ২০টি প্রজেক্টে কাজ করেছিলেন বলে জানা যায়।

পিএলএম/আওয়াজবিডি