মিথিলার হাতের রান্না খেলে রাগ কমবে শিলাজিতের!

বিনোদন ডেস্ক
১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বিকাল ৭:২১ সময়

গত জুন মাসে নতুন একটি সিনেমার ঘোষণা দেন সৃজিত। যেটার নাম ‘এক্স ইক্যুয়ালস টু প্রেম’। প্রকাশ করা হয় সিনেমাটির পোস্টারও। এরপরই ক্ষেপে যান শিলাজিৎ। কেননা এই নামটি মূলত তারই সৃষ্ট। ২০০০ সালে প্রকাশিত নিজের একটি অ্যালবামের নাম এটা রেখেছিলেন তিনি। অথচ সৃজিত অনুমতি না নিয়েই নামটি ব্যবহার করেছেন।

এ বিষয়ে ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন শিলাজিৎ। অন্যদিকে সৃজিত বলেছিলেন, শিলাজিতের সঙ্গে তার নিয়মিত কথা হয়। সুতরাং এই নামের জন্য অনুমতি নেয়ার প্রয়োজন নেই।

কয়েক মাস পেরিয়ে গেলেও এই দ্বন্দ্বের এখনো অবসান ঘটেনি। শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) রাতে আনন্দবাজার অনলাইনের লাইভে আসেন শিলাজিৎ। সেখানেই প্রসঙ্গক্রমে তিনি নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন। তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, সৃজিতের সঙ্গে জটিলতা মিটমাট হয়েছে কিনা।

জবাবে শিলাজিৎ বলেন, ‘পুরোপুরি মিটমাট হয়নি এখনও। সৃজিতের বাড়িতে যেদিন নিমন্ত্রণ করেছিল, সেদিন মিথিলা অনেক রান্না করে রে‌খেছিল। আমার কল্যাণে ওখানে অনেকে গিয়েছিল। তাদের মধ্যে শ্রীজাতও ছিল। তারা খেয়েছে। আমাকে যদি আলাদা করে না খাওয়ায়, তা হলে মীমাংসা হওয়ার কোনও অবকাশ নেই।’

আরও স্পষ্ট করে শিলাজিৎ জানান, কেবল তাকে আলাদা করে নিমন্ত্রণ জানিয়ে খাওয়াতে হবে। এবং অবশ্যই মিথিলার হাতের রান্না খাওয়াতে হবে। তাহলেই কেবল মিটমাট হবে।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি

রাজ আমাকে জোর করে চুমু খেয়েছিল: শার্লিন

বিনোদন ডেস্ক
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, দুপুর ২:২৭ সময়

রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে যারা অভিযোগ তুলেছিলেন, তাদের একজন শার্লিন চোপড়া। এই মডেল ও অভিনেত্রী বিস্ফোরক সব তথ্য প্রকাশ্যে আনেন। তার বয়ানও গুরুত্বের সঙ্গে রেকর্ড করেছে মুম্বাই পুলিশ।

এদিকে রাজের জামিন পাওয়ার পর শিল্পা শেঠিকে খোঁচা দিয়েছেন শার্লিন। টুইট করে তিনি বলেছেন, টিভিতে আপনি অনেক কিছুই করেন, বলেন। শিল্পীকে প্রণাম করতেও দেখা যায় আপনাকে। মাঝে মধ্যে একটু টিভির পর্দা থেকে বেরিয়ে কিছু একটা করুন। রাজপ্রাসাদ থেকে বেরিয়ে বাইরের জগতটার দিকে তাকান। সেলিব্রিটির মুখোশ খুলে মানুষকে সাহায্য করুন। দেখবেন আপনার সামনে সবাই মাথা নোয়াবে!

এর আগে রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলেছিলেন শার্লিন চোপড়া। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘২০১৯ সালের শুরুর দিকে আমার সহকারীকে ফোন করেন রাজ। রাজ আমার নামে একটি অ্যাপ তৈরি করার কথা বলেছিলেন। তারপর হঠাত্‍ আমার বাড়িতে এসে হাজির হন। রাজের সঙ্গে এই অ্যাপ নিয়ে তর্কও হয়েছিল। এরপরই হঠাত্‍ আমাকে জোর করে চুমু খেতে শুরু করেন রাজ! আমি বাধা দিলেও তিনি আমার কথা শোনেননি।’

শুধু তাই নয়, শিল্পার সঙ্গে রাজের সম্পর্ক ছিল না বলেও জানিয়েছিলেন শার্লিন। সেই দুঃখ তার কাছেই নাকি প্রকাশ করতেন রাজ।

শোনা যায়, রাজের পর্নভিডিওতে অভিনয় করেছিলেন শার্লিন। একেকটি প্রজেক্টের জন্য রাজের কাছ থেকে ৩০ লাখ রুপি করে পেতেন এই অভিনেত্রী। এরকম ১৫ থেকে ২০টি প্রজেক্টে কাজ করেছিলেন বলে জানা যায়।

পিএলএম/আওয়াজবিডি