ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে ড্রোন হামলা

আওয়াজবিডি ডেস্ক
১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, দুপুর ৪:৪২ সময়

শনিবার এরবিল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সংলগ্ন এলাকায় এই হামলা হয়েছে বলে প্রদেশটির নিরাপত্তা কর্মকর্তারা সংবাদমাধ্যম রয়টার্সকে নিশ্চিত করেছেন।

কুর্দিস্তানের আইনশৃঙ্খলা কর্মকর্তারা প্রাথমিকভাবে রয়টার্সকে জানিয়েছিলেন, এরবিলের বিমানবন্দরের কাছে রকেট হামলা হয়েছে। অন্তত তিনটি রকেট ছোড়া হয়েছে বিমানবন্দর লক্ষ্য করে।

পরে কুর্দিস্তানের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট তাদের বিবৃতিতে জানিয়েছে, বিমানবন্দরে রকেট নয়, ড্রোন হামলা হয়েছে। যে ড্রোনগুলো এক্ষেত্রে হামলাকারীরা ব্যবহার করেছে, সেগুলো বিস্ফোরকবাহী লাদেন ড্রোন ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, তারা এরবিল বিমানবন্দর এলাকায় অন্তত ছয়টি বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন।

হামলায় এখন পর্যন্ত কোনো প্রাণহানি বা ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। এখন পর্যন্ত কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি। কারা এই হামলা করেছে, তাও এখনো শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। তবে ধারণা করা হচ্ছে, ইরানের মদতপুষ্ট কুর্দি শিয়া মিলিশিয়া বাহিনী এই হামলার জন্য দায়ী।

গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকবার হামলা হয়েছে এরবিল বিমানবন্দরে। অধিকাংশ হামলা করেছে মিলিশিয়া বাহিনী, যারা দীর্ঘদিন যাবত ওই এলাকা মার্কিন দখলমুক্ত করতে যুদ্ধ করে যাচ্ছে।

ইরাকভিত্তিক আন্তর্জাতিক জঙ্গিসংগঠন আইএস দমনে আন্তর্জাতিক সামরিক জোটের নেতৃত্বে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী। সেই জোট থেকে এখন পর্যন্ত এই হামলা নিয়ে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

ইরাক থেকে এরইমধ্যে অধিকাংশ মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বর্তমানে দেশটিতে আড়াই হাজারের মতো মার্কিন সেনা রয়েছেন। সূত্র : রয়টার্স।

পিয়াল/আওয়াজবিডি

দেশের ভাবমূর্তি নষ্টকারীদের কঠোর সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর

আওয়াজবিডি ডেস্ক
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, দুপুর ৩:৪৪ সময়

নিউইয়র্কে শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কিছু লোক আওয়ামী লীগ সরকারকে অবৈধ বলে অভিহিত করছে। আমার প্রশ্ন হলো—কীভাবে তারা এ শব্দগুলো (সরকারের সমালোচনা) উচ্চারণ করার সুযোগ পায়? আমরা বাংলাদেশকে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ হিসেবে গড়ে তুলেছি বলেই তারা এটা বলার সুযোগ পেয়েছে।

বিএনপি ও জামায়াতের কাছ থেকে সরকারের সমালোচনাকারীরা অর্থগ্রহণ করে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যদি তারা নীতিবান হয় এবং তাদের কোনো আদর্শ থাকে, তাহলে তারা আমাদের তৈরি করা ডিজিটাল সিস্টেমগুলো কেন ব্যবহার করে?’

সরকারপ্রধান বলেন, ‘হাইকোর্ট জিয়াউর রহমান এবং এরশাদ সরকারকে অবৈধ হিসেবে ঘোষণা করেছে, কারণ তারা সামরিক আইন জারি করে তাদের সরকার গঠন করেছে।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘জিয়াউর রহমানের স্ত্রী এতিমদের অর্থ আত্মসাতের জন্য সাজাপ্রাপ্ত এবং তার ছেলে (তারেক রহমান) ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলা এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। এমনকি তাদের দুর্নীতির তথ্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনও (এফবিআই) প্রকাশ করেছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি দেশের মানুষের অর্থ আত্মসাৎ করে এত বেশি অবৈধ অর্থ উপার্জন করেছে যে, তারা একজন এফবিআই’র লোককে নিয়োগ করেছিল, যা পরে এফবিআই প্রকাশ করে।’

জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচনে জয়ের শক্তি এবং সাহস থাকলে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে।’

বিএনপির শাসনামলে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘খালেদা জিয়া ১৯৯৬ সালে ১৫ ফেব্রুয়ারি জাতীয় নির্বাচনের ব্যবস্থা করেছিল, কিন্তু সব রাজনৈতিক দল সে নির্বাচন বর্জন করে এবং জনগণ তাদের ভোট দেয়নি। যেহেতু জনগণ তাদের ভোট দেয়নি, তাই তারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি।’

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি