যুক্তরাষ্ট্রের ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বিগ্ন বুশ, দিলেন ঐক্যের ডাক

উত্তর আমেরিকা অফিস
১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, দুপুর ৪:০৩ সময়
যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ —ছবি- সংগৃহীত

শনিবার ৯/১১ হামলার ২০ বছর পূর্তিতে পেনসিলভানিয়ার শাঙ্কসভিলে আয়োজিত স্মরণসভায় অংশ নিয়ে তিনি এই আহ্বান জানান।

আফগান যুদ্ধের কারিগর বুশ বলেন, যখন আমেরিকানদের ঐক্যের বিষয়টি সামনে আসে, সেইদিনগুলো থেকে আমরা অনেক দূরে আছি মনে হয়’।

তিনি বলেন, ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের সন্ত্রাসী হামলার পর আমেরিকার জনগণের মধ্যে যে ঐক্য দেখা গিয়েছিল, একই ঐক্য নিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। তবে ভয় ও অস্থিরতা আমাদের জনগণকে এক হওয়া থেকে দূরে সরিয়ে দিয়েছে, যা আমেরিকার ভবিষ্যতের জন্য খারাপ।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বরের পর আমেরিকার লোকজন হাতে হাত ধরে পরিস্থিতি মোকাবিলা করেছিল। তবে কোনো বিভক্তিই ১১ সেপ্টেম্বরে নিহত মানুষের ত্যাগের ঘটনাকে ম্লান করতে পারেনি বলে উল্লেখ করেন বুশ।

সেদিনের সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের পরিবারের উদ্দেশে বুশ বলেন, ‘আমরা আপনাদের দুঃখ বুঝি এবং আমরা তাদের সম্মান জানাতে চাই যাদেরকে আপনারা দীর্ঘদিন ভালেবেসে যাচ্ছেন।

বক্তব্যে চরমপন্থীদের চেতনার সঙ্গে প্রতিনিয়ত লড়াই চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক-এর ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে বিমান নিয়ে হামলা চালায় জঙ্গি গোষ্ঠী আল কায়েদা। হামলা চালানো হয় মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগনেও। ওইদিন প্রাণ হারান প্রায় ৩ হাজার মানুষ। যা বিশ্ববাসীর কাছে ৯/১১ হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে।

পিয়াল/আওয়াজবিডি

দেশের ভাবমূর্তি নষ্টকারীদের কঠোর সমালোচনা প্রধানমন্ত্রীর

আওয়াজবিডি ডেস্ক
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, দুপুর ৩:৪৪ সময়

নিউইয়র্কে শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কিছু লোক আওয়ামী লীগ সরকারকে অবৈধ বলে অভিহিত করছে। আমার প্রশ্ন হলো—কীভাবে তারা এ শব্দগুলো (সরকারের সমালোচনা) উচ্চারণ করার সুযোগ পায়? আমরা বাংলাদেশকে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ হিসেবে গড়ে তুলেছি বলেই তারা এটা বলার সুযোগ পেয়েছে।

বিএনপি ও জামায়াতের কাছ থেকে সরকারের সমালোচনাকারীরা অর্থগ্রহণ করে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যদি তারা নীতিবান হয় এবং তাদের কোনো আদর্শ থাকে, তাহলে তারা আমাদের তৈরি করা ডিজিটাল সিস্টেমগুলো কেন ব্যবহার করে?’

সরকারপ্রধান বলেন, ‘হাইকোর্ট জিয়াউর রহমান এবং এরশাদ সরকারকে অবৈধ হিসেবে ঘোষণা করেছে, কারণ তারা সামরিক আইন জারি করে তাদের সরকার গঠন করেছে।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘জিয়াউর রহমানের স্ত্রী এতিমদের অর্থ আত্মসাতের জন্য সাজাপ্রাপ্ত এবং তার ছেলে (তারেক রহমান) ১০ ট্রাক অস্ত্র মামলা এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। এমনকি তাদের দুর্নীতির তথ্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনও (এফবিআই) প্রকাশ করেছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি দেশের মানুষের অর্থ আত্মসাৎ করে এত বেশি অবৈধ অর্থ উপার্জন করেছে যে, তারা একজন এফবিআই’র লোককে নিয়োগ করেছিল, যা পরে এফবিআই প্রকাশ করে।’

জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচনে জয়ের শক্তি এবং সাহস থাকলে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে।’

বিএনপির শাসনামলে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘খালেদা জিয়া ১৯৯৬ সালে ১৫ ফেব্রুয়ারি জাতীয় নির্বাচনের ব্যবস্থা করেছিল, কিন্তু সব রাজনৈতিক দল সে নির্বাচন বর্জন করে এবং জনগণ তাদের ভোট দেয়নি। যেহেতু জনগণ তাদের ভোট দেয়নি, তাই তারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারেনি।’

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি