বলিউড সিনেমায় মিম-মেহজাবীন না করলেও, রাজি বাঁধন

বিনোদন ডেস্ক
১২ সেপ্টেম্বর ২০২১, দুপুর ৩:৪৭ সময়
আজমেরী হক বাঁধন

সূত্রে জানা গেছে, তিনি ‘খুফিয়া’ নামের এই ছবিতে অভিনয় করতে রাজি হয়েছেন। তবে বলিউড সিনেমায় অভিনয়ের বিষয়ে নিশ্চিত করেন অভিনেত্রী বাঁধন। তবে তিনি যে সিনেমাটি করছেন না, সেটিও বলেননি। এ ব্যাপারে এই অভিনেত্রী হয়তো এখনও মুখ খুলতে চাচ্ছেন না।

বলিউডের কোনো সিনেমার প্রস্তাব পাওয়া বিষয়টি জানতে চাইলে অভিনেত্রী বাঁধন বলেন, আমি এটা নিয়ে কথা বলতে পারছি না। তবে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, বাঁধন এই সিনেমার জন্য অডিশনও দিয়েছেন।

বলিউডের অন্যতম নির্মাতা বিশাল ভরদ্বাজ সিনেমাটি নির্মাণ করবেন। যেখানে গল্পের জন্যই বাংলাদেশের একজন অভিনেত্রী প্রয়োজন। এর আগে এই সিনেমায় অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছেন অভিনেত্রী মিম ও মেহজাবিন। এই ছবির গল্পে বাংলাদেশকে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বলে তারা রাজি হননি।

বিশাল ভরদ্বাজের নামের সঙ্গে জড়িয়ে আছে ‘মকবুল’, ‘ইশকিয়া’, ‘কামিনে’, ‘হায়দার’, ‘ওমকারা’র মতো বিখ্যাত সব চলচ্চিত্র।

পিয়াল/আওয়াজবিডি

অভিজাত এলাকায় গাড়ি চালালে দিতে হবে ‘এক্সট্রা চার্জ’: আতিক

আওয়াজবিডি ডেস্ক
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, দুপুর ২:০০ সময়

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর খিলগাঁওয়ে এক পদযাত্রা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস উপলক্ষে এ পদযাত্রার আয়োজন করে ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ।

মেয়র বলেন, রাজধানীতে ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা বেড়ে গেছে। রাস্তায় বের হলে গাড়ি আর গাড়ি। শ্যুটিংক্লাব থেকে গুলশান-১, গুলশান-১ থেকে গুলশান-২, বনানী থেকে গুলশান-২ রাস্তায় ঢুকলে শুধু গাড়ি আর গাড়ি। পরিবারের সবার জন্য আলাদা আলাদা একটি করে গাড়ি আছে অনেকের। আমাদের গাড়ির সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে। এসব গাড়ির জন্য দিন দিন যানজটের মাত্রা বাড়ছে। তাই আমরাও পরিকল্পনা করেছি, রাজধানীর অভিজাত এলাকা দিয়ে গাড়ি চলার সময় এক্সট্রা চার্জ দিতে হবে।

তিনি বলেন, বিদেশে আমরা দেখেছি, যাদের গাড়ি আছে তাদেরও বিভিন্ন রাস্তায় ঢুকলে এক্সট্রা চার্জ দিতে হয়। তাই আমরাও পরিকল্পনা করেছি, গুলশান বারিধারাসহ অভিজাত এলাকগুলোতে গাড়ি ঢুকলে এক্সট্রা চার্জ দিতে হবে। আমরা এসব অভিজাত এলাকায় মেশিন বসিয়ে প্রথমে গাড়ি গণনা করবো, দেখবো কতগুলো গাড়ি প্রবেশ করে। এরপর একটি সমীক্ষা করে বিষয়টি আমরা কার্যকর করবো। তখন অভিজাত এলাকায় গাড়ি চলার সময় ‘এক্সট্রা চার্জ’ ধরা হবে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের সাড়কে অনেক রুটপারমিট বিহীন গাড়ি চলাচল করছে, অনেক গাড়ির ফিটনেস নেই। এসব বিষয়ে আমাদের পদক্ষেপ গ্রহণ করে জরুরিভাবে ব্যবস্থা নিতে হবে। এছাড়া যেসব এলাকায় সমস্যা আছে সেগুলো এলাকাভিত্তিকভাবে স্থানীয়রা দায়িত্ব নেন। আমাকে জানান কী সমস্যা আছে, কী করতে হবে। আমি আপনাদের সঙ্গে নিয়ে সেসব সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নিবো।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, আমাদের ফুটপাত দখল হয়ে আছে, খালগুলোতেও একই অবস্থা। আমাদের এসব দখলমুক্ত করতে হবে। সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। আগামী প্রজন্মের জন্য আমাদের খেলার মাঠগুলো উন্মুক্ত করে দিতে হবে। সবাই মিলে নিজ নিজ জায়গা থেকে দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে একটি সুন্দর, সচল, আধুনিক, সুস্থ ঢাকা আমাদের গড়তে হবে।

পিএলএম/আওয়াজবিডি